শনিবার, অক্টোবর ১, ২০২২

গুলির শব্দে আজও আতকে ওঠেন হরিপদ সরকার

সমরেন্দ্র বিশ্বশর্মা, বিশেষ প্রতিনিধি :

- Advertisement -

গুলির শব্দে আজও আতকে ওঠেন হরিপদ সরকার দুখু। ১৯৭১ সনে পাকহানাদার বাহিনীর গুলির নিশানা থেকে অলৌকিক ভাবে বেঁচে যান তিনি। কিন্তু গুলির শব্দে হারিয়ে ফেলেন শ্রবনশক্তি। নেত্রকোণা জেলা প্রশাসক কাজি মোঃ আবদুর রহমান মুক্তিযুদ্ধের সময়ের তার কষ্টের বিষয়টি জানতে পেরে চিকিৎসার জন্য কিছু আর্থিক সহায়তা নিয়ে পাশে দাঁড়ান।

- Advertisement -

কেন্দুয়া উপজেলায় ১১ নং চিরাং ইউনিয়নের সাজিউড়া গ্রামের মৃত বিপিন সরকারের ছেলে হরিপদ সরকার দুখু। ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় ভাদ্র মাসের কোন একদিন পাক হানাদার বাহিনী সাজিউড়া গ্রাম থেকে ৫ জনকে ধরে এসে ধোপাগাতি গ্রামের সিদ্দিকুর রহমান মাষ্টারের বাড়ির সামনের একটি ডুবার পানিতে দাঁড় করিয়ে গুলি চালায়। ৫ জনের মধ্যে রয়েছেন, ডা. খগেন্দ্রনাথ বিশ্বাস, সতীষ চন্দ্র ঘোষ, যতীন্দ্র নমদাস ও হরিপদ সরকার দুখু। হরিপদ সরকার দুখুই ছিলেন সর্ব পেছনে। বৃহস্পতিবার উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ের সামনে হরিপদ সরকার দুখু জানান আমি ঘাড় কাত করে দেখছিলাম পাকবাহিনী গুলি কখন করে।

গুলি করার সঙ্গে সঙ্গেই আমি পানিতে পড়ে গেলে আমার শরীরে আর গুলি লাগেনি। কৌশলে ডুবার পানিতে ডুব দিয়ে অন্য স্থানে চলে যাই। তবে তিনি বলেন, গুলি শব্দটা আজও কানে ভেসে আসলে আমি আতকে ওঠি। গুলির শব্দের কারণেই হরিপদ সরকার তার শ্রবন শক্তি হারিয়ে ফেলেছেন অনেকটাই। দুই ছেলে ও ৩ কন্যার জনক হরিপদ সরকারের সংসার চলে খুব দুঃখ কষ্টে। ৭৫ বছর বয়সী হরিপদ সরকার এখন আর কোন কর্ম করতে পারেন না। ৩ কন্যাকে বিয়ে দিয়ে নিঃস্ব রিক্ত অবস্থায় চলেন তিনি। ছেলেদের আয় রোজগারেই তাদের সংসার চলে। গত ১৭ ফেব্রæয়ারি জেলা প্রশাসক কাজি মোঃ আবদুর রহমান ৪ শহীদ স্মরণে ধুপাগাতি গ্রামের সিদ্দিকুর রহমান মাষ্টারের ছেলে ফরহাদ আহম্মদ ভূঞার দেয়া জায়গাতে নির্মিত চিরঞ্জীব স্মৃতি ফলক উদ্বোধন করেন হরিপদ সরকারকে নিয়েই।

- Advertisement -

এসময় তিনি হরিপদ সরকারের বেঁচে যাওয়ার গল্পটি জানতে পেরে তাকে কিছু আর্থিক সহায়তার ঘোষনা দেন। বৃহস্পতিবার ১০ মার্চ দুপুরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মইন উদ্দিন খন্দকার তার কার্যালয়ে হরিপদ সরকারের হাতে জেলা প্রশাসনের মানবিক সহায়তা হিসেবে কিছু নগদ টাকা তুলে দেন। টাকা পেয়ে হরিপদ সরকার খুব খুশি। তিনি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি রক্ষা করায় এ ইতিহাস সম্পর্কে নতুনরা জানতে পারবে। জেলা প্রশাসকের পরিকল্পনায় চিরঞ্জীব স্মৃতি ফলক নির্মিত হওয়ায় তিনি কৃতজ্ঞতা জানান।

আরও পড়ুন: ময়মনসিংহে কোতোয়ালীর অভিযানে পরোয়ানাসহ গ্রেফতার-৭

- Advertisement -
এই জাতীয় আরও সংবাদ
- Advertisment -

জনপ্রিয় সংবাদ