শনিবার, অক্টোবর ১, ২০২২

টঙ্গীবাড়ীতে জাল দলিল ও ভুমি দস্যূতার বিরুদ্ধে মানববন্ধন

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি

- Advertisement -

মুন্সিগঞ্জের টঙ্গীবাড়ীতে জাল দলিল ও ভুমি দশ্যূতার বিরুদ্ধে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলার  বেতকা চৌরাস্তায় পাইকপাড়া গ্রামের আক্তার হোসেন মোল্লার বিরুদ্ধে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।  বিকাল ৫ টা হতে সাড়ে পাঁচটা পর্যন্ত আধঘন্টা  ব্যাপী এ মানববন্ধনে প্রায় ২০০ শতাধিক লোক উপস্থিত ছিলেন। মানববন্ধনকারীরা বলেন, বেতকা চৌরাস্তাযর ৪৯ শতাংশ জমি স্থানীয় বেতকা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান রোকেনুজ্জামান সিকদার রিগান কিনেছেন । ওই জমির মধ্যে সাড়ে ২৪ শতাংশ জমি পাইকপাড়া গ্রামের আক্তার মোল্লা জোড় করে দখল করে রেখেছে । সে ওই জমি ছেড়ে দিবে বলে চেয়ারম্যানের কাছ থেকে ৮ লাখ টাকা নিছে তারপরও ওই সম্পত্তি সে ছেড়ে দিচ্ছে না।

- Advertisement -

উক্ত মানববন্ধনে  দক্ষিণ বেতকা গ্রামের ইউনুস হাওলাদার বলেন, আক্তার মোল্লা শিক্ষিত মানুষ জাল দলিল কিভাবে বানাতে সে ভালো জানে, জাল দলিল কইরা সে পরের জায়গা আটকাইয়া রাখছে। জায়গা হইল আমাদের চেয়ারম্যান রিগ্যান শিকদারের। আক্তার মোল্লা জাল দলিল কইরা বলে এটা তার পৈতৃক সম্পত্তি। সে চেয়ারম্যানের জায়গা দখল কইরা রাখছে আবার ছাইড়া দিব কইয়া আট- দশ লাখ টাকা নিয়া খাইছে টাকা নিয়েও বলে বলে এই যায়গা তার। এসময় মানববন্ধনকারীরা আক্তার মোল্লার বিচার চাই বলে স্লোগান দেন।  মানববন্ধন কালে বেতকা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রিগ্যান শিকদার বলেন, আমি যেখানে দাড়িয়ে আছি এর পেছনের জায়গাটা আমার। এখানে সারে উনপঞ্চাশ শতাংশ জমি এটা আমি দলিলের মাধ্যমে ক্রয় করেছি, এই জমি আমি কেনার আগে আক্তার মোল্লা ও হাজী রফিকুল ইসলাম গং জাল দলিল করে তাদের নামে নিয়ে গিয়েছিল। পরে জমির প্রকৃত মালিক  জাল দলিলের বিরুদ্ধে মামলা করলে হাজী রফিকুল ইসলাম দুই মাস জেল খাটে, তার পর  আক্তার মোল্লা ও রফিকুল গং দের নামজারী বাতিল হলে প্রকৃত জমির মালিক দের নামে নামজারী হলে আমি তাদের কাছ থেকে দলিলের মাধ্যমে জমিটি ক্রয় করি। এবং তিনি   আরও বলেন  আক্তার মোল্লা স্কুলের চাকুরী  যেন না যায় এজন্য তিনি  ইউএনও  এর কাছে স্যারেন্ডার করেন। আক্তার মোল্লা যে   জাল দলিল করছে সেই দলিলে এস, এ ও আরএস রেকর্ডীয় মালিক  ভুবন মোহন দত্ত হইতে সে  কিনেছে ১৯৮১ সালে কিনেছে উল্লেখ করেছে কিন্তু ভুবন মোহন দত্ত মারা গেছে ১৯৬৩ সালে সেই প্রমানও আমার কাছে আছে। তিনি মৃত ব্যাক্তিকে জীবিত বানিয়ে জাল দলিল করে নিয়েছে। 

- Advertisement -
এই জাতীয় আরও সংবাদ
- Advertisment -

জনপ্রিয় সংবাদ