সোমবার, জুলাই ৪, ২০২২

মিথ্যে অভিযোগ দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা দুর্গাপুরে বিএসসি শিক্ষককে জড়িয়ে প্রতিপক্ষের থানায় অভিযোগ!

কলিহাসান,দুর্গাপুর(নেত্রকোনা)প্রতিনিধি:

- Advertisement -

নেত্রকোনার দুর্গাপুরে তুচ্ছ ঘটনার জেরে স্মরণিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বিএসসি শিক্ষক ইয়াকুব আলী(৫০), সাবেক ইউপি সদস্য মশিউর রহমান(৩৬) সহ ৪ জনকে জড়িয়ে দুর্গাপুর থানায় অভিযোগ দাখিল করেছে প্রতিবেশী মো.আবু তালেব। আজ শুক্রবার দুপুরে বাকলজোড়া ইউপির গুজিরকোনা গ্রামে অভিযোগটির ঘটঁনাস্থলে তদন্ত যান দুর্গাপুর থানা পুলিশের সাব-ইন্সপেক্টর মো. আনিসুল হক।

- Advertisement -

গত ১৫ মে সকাল ১০টার দিকে শিক্ষক ইয়াকুব আলীর ভাতিজা সাবেক ইউপি সদস্য মশিউর রহমান(৩৬) ও অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী আশিকুর রহমান(১৫), আনিসুর রহমান(২৬) কে মারধর করার ঘটনায় গত ১৯ মে দুর্গাপুর থানায় একটি মামলা রুজু করা হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে প্রতিপক্ষ ওই গ্রামের আফোশ আলীর পুত্র আবু তালেব(৫৯) এ অভিযোগ দায়ের করেণ। তবে ঘটনার দিন ওই স্কুলের সহকারী শিক্ষক ইয়াকুব আলী স্কুলে পাঠদান করছিলেন বলে জানান ভুক্তভোগী। ইয়াকুব আলী পেশায় শিক্ষক। তিনি দুর্গাপুর পৌর শহরে বসবাস করেণ।

অভিযোগের বিবরণ ও খোঁজ নিয়ে জানা যা, গত ১৬ মে দুপুরে উপজেলার বাকলজোড়া ইউনিয়নের গুজিরকোনা গ্রামে প্রতিবেশীর ধান ক্ষেতে হাঁস যাওয়াকে কেন্দ্র করে মারধরের ঘটনা ঘটে। পরে ওইদিন রাত ১০টার দিকে ভুক্তভোগী মশিউর রহমান (১)মোন্তাজ আলী(৪৫),(২)সোহেল মিয়া(২৫), (৩)মাসুদ মিয়া(২১) (৪) শফিকুল ইসলাম(৩০) (৫)পারভিন আক্তার(৪৭) আক্তারকে অভিযুক্ত করে দুর্গাপুর থানায় একটি অভিযোগ দাখিল করে। অভিযোগটি আমলে মামলা রুজু করে থানা পুলিশ। গুরুতর জখমী আশিকুর রহমান গুজিরকোনা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল। ওই গুরুতর জখমী শিক্ষার্থী দুর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে বলে জানা গেছে।

- Advertisement -

প্রধান অভিযুক্ত সহকারী শিক্ষক মো. ইয়াকুব আলী (বিএসসি) জানান, আমি কোন ধরণের অনৈতিক কর্মকাÐের সাথে কখনো জড়িত নই। পারিবারিক তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মারধর করে উল্টো আমাকে হেয় করার জন্য থানায় অভিযোগ দিয়ে হয়রানী করার বিষয়টি পুরোপুরি মানবাধিকার লঙ্ঘন। আমি প্রশাসনের কাছে আশা করবো, তদন্ত সাপেক্ষে এ ঘটনার সাথে জড়িত প্রকৃত ঘটনাটি যাতে বের হয়ে আসে। আমি স্কুলে পাঠদানে ছিলাম, মারধরের ঘটনায় আমার কোন সম্পৃক্ততা ছিলনা। আমাকে জড়ানো একটি চক্রান্তের সামিল।

এ বিষয়ে দুর্গাপুর থানার ওসি মোহাম্মদ শিবিরুল ইসলাম জানান, একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগটি তদন্তাধীন রয়েছে। পরবর্তী সময়ে এ বিষয়ে জানানো হবে।

- Advertisement -

আরও পড়ুন: দুর্গাপুরে দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষাবৃত্তির চেক বিতরণ করল দুঃস্থ স্বাস্থ্য কেন্দ্র

- Advertisement -
এই জাতীয় আরও সংবাদ
- Advertisment -

সর্বশেষ সংবাদ

- Advertisment -