সোমবার, আগস্ট ১৫, ২০২২

শ্রীনগরে একই সংগঠনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি নেতার পদলাভ, ক্ষোভ!

রোমান হাওলাদার সিরাজদিখান প্রতিনিধি

- Advertisement -
মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার বিরতারা ইউনিয়নে অবস্থিত “মজিদপুর দয়হাটা অবকাশ ক্লাব” নামে একটি ক্লাবের কমিটি গঠন করা হয়েছে। এতে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুল করিম মাষ্টারকে আহবায়ক ও ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ইসরাফিল আলমকে সদস্য সচিব করে ৭ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়। গত ২২ জুন বীরতারা ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সভাপতি ও শ্রীনগর উপজেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য মোঃ জাহাঙ্গীর নব গঠিত এ কমিটির অনুমোদন দেন। “মজিদপুর দয়হাটা অবকাশ ক্লাব” নামে ওই সংগঠনে আওয়ামী লীগ এ বিএনপি নেতার একত্রে পদ লাভ নিয়ে রাজনৈতিক অঙ্গনে ব্যপক আলোচনা ও সমালোচনা হচ্ছে। এছাড়া এ নিয়ে  উভয় দলের নেতাকর্মীর মধ্যে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে মর্মে একাধিক নেতাকর্মী মুঠোফোনে জানিয়েছেন। এমনকি উভয় দলের নেতাকর্মীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্য ফেইসবুকে পোষ্ট করে ক্ষোভ প্রকাশ করার কথাও জানিয়েছেন। জানা যায়, গত ২২জুন বিরতারা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুল করিমকে আহবায়ক ও ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ইসরাফিল আলমকে সদস্য সচিব  ও সিদ্দিকুর রহমান লস্কর,  ইউপি সদস্য আমিনুল ইসলাম ও আল আমিনকে সদস্য করে ৭ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়। কমিটি গঠনের পর থেকে ইউনিয়ন ছাত্রলীগের একাংশ ও ইউনিয়ন বিএনপি ও আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার পাশাপাশি চাপা ক্ষোভ লক্ষ করা গেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক, বীরতারা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের এক নেতা বলেন, একজন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি যদি বিএনপির সাথে সমন্বয় করে রাজনীতি করে আমরা ছাত্রলীগ রা তখন নিরুপায়। দলের দূর্দিনে তো আর তাকে খুজে পাওয়া যাবে না। ফজলুল করিম মাষ্টার জাতীয় পার্টির নেতা ছিলেন পরে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে যোগ দেন।  এ ব্যপারে মজিদপুর দয়হাটা অবকাশ ক্লাবের সাবেক সভাপতি মোঃ জাহাঙ্গীর  বলেন, এটি একটি সামাজিক সংগঠন। এখানে কোন রাজনৈতিক কথাবার্তা হয়না। সংগঠনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, বিকল্পধারা ও অন্যান্য দলের লোকজনসহ ইউপি সদস্যও রয়েছে। সমাজকে এগিয়ে নিতে সবাইকে দল মত নির্বিশেষে কাজ করতে হবে।
- Advertisement -
এই জাতীয় আরও সংবাদ
- Advertisment -

সর্বশেষ সংবাদ

- Advertisment -